লক্ষ্মীপুরে ১ এপ্রিল থেকে অভিবাসীদের নাম নিবন্ধন ও ফিঙ্গারপ্রিন্ট কার্যক্রম চালু হচ্ছে

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: মুজিব বর্ষ উপলক্ষে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রনালয় ও জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো সহযোগীতায় আগামী ১ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) থেকে লক্ষ্মীপুরে অভিবাসীদের নাম নিবন্ধন ও ফিঙ্গারপ্রিন্ট কার্যক্রম চালু হচ্ছে
লক্ষ্মীপুর কারিগরী প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে নিবন্ধন ও ফিঙ্গারপ্রিন্ট কার্যক্রম চলবে। (
সোমবার) সকালে জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো উপসচিব মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ভৃঁইয়া স্বাক্ষরিক এক পত্রে এই তথ্য নিশ্চিত করেন।
ওই পত্রে বলা হয় যে সকল জেলায় ডিইএমও অফিস নেই সে সকল জেলা লক্ষ্মীপুর, নারায়নগঞ্জ, মাদারীপুরসহ মোট ১০ জেলায় এই কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। আগামী ১ এপ্রিল হতে বিদেশ গমনেচ্ছুক কর্মীদের ডাটাবেজ নাম নিবন্ধন ও ফিঙ্গার কার্যক্রম সাময়িক ভাবে চালু করার জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হয়।
এ ব্যাপারে লক্ষ্মীপুর কারিগরী প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী মো: গিয়াস উদ্দিন আহমেদ বলেন এ ব্যাপারে নির্দেশনা পেয়েছি। আগামী ১ এপ্রিল থেকে কার্যক্রম শুরু করার জন্য সকল প্রস্ততি নিচ্ছি। ইতিমধ্যে কর্মীদের এ ব্যাপারে প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বিদেশকর্মীদের এখন আর ঢাকায় কিংবা নোয়াখালী যেতে হবেনা। লক্ষ্মীপুর থেকে এ সুবিধা নিতে পাবে।
ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর মাইগ্রেশন পলিসি ডেভেলপমেন্ট (আইসিএমপিডি)-এর বাংলাদেশের কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর মোহাম্মদ ইকরাম হোসেন বলেন, লক্ষ্মীপুরের অনেক মানুষ দেশের বাইরে অবস্থান করছে। তারা নোয়াখালী, ঢাকায় গিয়ে নাম নিবন্ধন ও ফিঙ্গারপ্রিন্ট করতে হতো। বিষয়টি আমাদের পূর্বে জানা ছিলোনা।
লক্ষ্মীপুরে সম্প্রতি সফর করতে গিয়ে স্থানীয় সাংবাদিকদের মাধ্যমে বিষয়টি অবগত হই। পরে বিষয়টি প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রনালয় সহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে অবহিত করি। অবশেষে লক্ষ্মীপুরবাসী সেই সুবিধা পেল। আইসিএমপিডি অভিবাসীদের উন্নয়নে কাজ করে। তাদের সুবিধা জন্য মন্ত্রনালয় এই সুবিধা চালু করেছে এখন থেকে লক্ষ্মীপুরের অভিবাসীরা এই সুফল পাবে। এতে অর্থ ও সময় দুটোই সাশ্রয় হবে।