১৫০ টি উপজেলায় রাজাকারের তালিকা চূড়ান্ত, ডিসেম্বরের প্রকাশ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সাবেক মন্ত্রী শাজাহান খান এমপি বলেছেন দেশের ১৫০ টি উপজেলায় রাজাকারের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। আগামী ১৬ ডিসেম্বর তা জাতির সামনে প্রকাশ করা হবে। তিনি বলেন বিএনপি মুক্তিযুদ্ধাদের অবজ্ঞা করেছে। কিন্তু সরকার মুক্তিযুদ্ধাদের উন্নয়ন ব্যাপক কাজ করেছে ভবিষ্যতে করে যাবে।
তিনি বলেন বিএনপির মহাসচিব ফখরুল ইসলাম আলমগীর মাঝে মধ্যে উম্মাদ হয়ে যান। তিনি সরকারের উন্নয়ন দেখে সমালোচনা করেন। খালেদা জিয়া কে মুক্তিযুদ্ধা দাবী করে স্বাধীনতাকে অসম্মান করেছে। জাতির কাছে তাদের বিচার হওয়া উচিত
তিনি বলেন মুক্তিযুদ্ধের তালিকা যাচাই-বাছাই শেষ করা যাচ্ছেনা। এ কারণে মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের নির্বাচন করা সম্ভব হচ্ছেনা। তবে স্থায়ী কমিটি সভা থেকে আমরা নির্বাচন করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেছি। প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহনের সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি বলেন জামুকা বিধিমালা সংশোধন করা হয়েছে।
তিনি দু:খ প্রকাশ করে বলেন অনেক মুক্তিযোদ্ধার সন্তানেরা মহান বিজয় দিবস ও স্বাধীনতা দিবস কবে তা বলতে পারেনা। বঙ্গবন্ধু কবে কোথায় জন্ম গ্রহন করেছে তাও বলতে পারেনা। তিনি বলেন মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের ঐক্যবদ্ধ করা একান্ত প্রয়োজন। তিনি আরও বলেন বিএনপি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা কে ধ্বংস করেছে। পাকিস্তান জিন্দাবাদ বলার সুযোগ বিএনপি তৈরি করেছে। বর্তমান সরকার জয় বাংলা কে জাতীয় স্লোগান হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। জয় বাংলা জাতীয় স্লোগান থাকবে এতে যারা বিরোধীতা করবে তাদের প্রতিহত করতে হবে।
১২ সেপ্টেম্বর (সোমবার) সকালে লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে জেলা/ উপজেলা বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। জেলা প্রশাসক মো: আনোয়ার হোছাইন আকন্দ এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন লক্ষ্মীপুর-২ আসনের এমপি এ্যাড: নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন, পুলিশ সুপার মাহফুজ্জামান আশরাফ, জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু, বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজ্জাকুল হায়দার, তোফায়েল আহমদ, সালা উদ্দিন আহমেদ ভূঁইয়া, মাহবুবুল আলম, নুরেরজ্জামান মাষ্টার প্রমুখ। পরে শাজাহান খান জেলার ছাত্রলীগ কর্তৃক নব গঠিক অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।