লক্ষ্মীপুরে অনিয়মের কারণে হাসন্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন স্থগিত

প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার হাসন্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন স্থগিত করতে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো: আবু তালেব কে নির্দেশ দিয়েছে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: ইমরান হোসেন। এ ছাড়া অনিয়মের বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য পৃথক ভাবে উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সালেহ আহমদ কে নির্দেশ প্রদান করেছে।
এ দিকে অভিযোগ উঠেছে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল মান্নান ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির আহবায়ক মুক্তার হোসেন নিয়ম নীতি ভেঙ্গে জাল জালিয়াতির মাধ্যমে নির্বাচন আয়োজন করার প্রস্ততি নিচ্ছে। এ ঘটনায় এলাকায় তীব্র ক্ষোভ অসন্তোষ বিরাজ করছে। এলাকাবাসী বিধিমালা মেনে সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন আয়োজন করার জন্য প্রশাসনের কাছে জোর দাবী জানিয়েছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, হাসন্দি উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির নির্বাচন আগামী ২১ সেপ্টেম্বর ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করে গত ১৪/০৮/২০২২ ইং।
এ দিকে নির্বাচনে অভিভাবক সদস্য পদে মো: মামুন হোসেন, মো: আবদুল্লা আল মামুন ৫ হাজার টাকা দিয়ে মনোয়নপত্র ক্রয় করেন। কিন্তু বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল মান্নান ও আহবায়ক কমিটির সভাপতি মো: মুক্তার হোসেন যোগ-সাজসে চূড়ান্ত ভোটার তালিকা থেকে জাল জালিয়াতির মাধ্যমে মো: মামুন ও আবদুল্লা আল মামুনের নাম বাদ দিয়ে তাদের স্ত্রী নাম অন্তর্ভুক্ত করে। প্রিসাইডিং অফিসার ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবু তালেবের নিকট জমা দেন। পরে প্রিসাইডিং অফিসার গত ১০/০৯/২০২২ ইং তারিখে ওই প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বাতিল করে। তড়িঘড়ি করে নির্বাচনের প্রস্ততি নেয়। পরে বিষয়টি জানতে পেরে প্রার্থী মামুন হোসেন ও আবদুল্লা আল মামুন বাদী হয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর গত ১০/০৯/২০২২ ইং একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: ইমরান হোসেন লিখিত আদেশে নির্বাচন স্থগিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য প্রিসাইডিং কর্মকর্তা ও উপজেলা মাধ্যমিক অফিসার আবু তালেব কে নির্দেশ দেন। এ ছাড়া পৃথক ভাবে নির্বাচনের অনিয়ম ও জাল জালিয়াতির ঘটনায় তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো: সালেহ আহমদ কে নির্দেশ প্রদান করেন।
অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে হাসন্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল মান্নান বলেন নির্বাচন বিধি মালা অনুযায়ী করা হচ্ছে। তবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেওয়া স্থগিতের আদেশ তিনি এখনও পাননি আদেশ ফেলে সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করবেন। চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রার্থীর নাম কর্তনের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কোন সঠিক উত্তর দিতে পারেনি।
এ বিষয়ে জানতে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবু তালেব এর মোবাইল ফোনে কল করেও তার মতামত সম্ভব হয়নি। তবে উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সালেহ উদ্দিন জানান তিনি বিদ্যালয়ের অনিয়মের বিষয়ে তদন্ত করে রিপোর্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর প্রেরণ করবেন।