আমি নিজেই একটি ত্রিপল নাইন- লক্ষ্মীপুর পুলিশ সুপার

সারোয়ার হোসেন, রামগতি (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধিঃ
“যার কেউ নেই, তার মাহফুজ্জামান আশরাফ আছে! আমি নিজেই একটা ত্রিপল নাইন। ৯৯৯ এর পাশাপাশি যে কোন সময় যেকোন প্রয়োজনে আমাকে কল করতে পারেন। আমি আপনাদের এসপি হতে চাই। আমি কারোর একার হতে চাই না। আমি সেবা দিতে এসেছি, হান্ড্রেড পারসেন্ট সেবা।” – লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে বিভিন্ন পেশার সুধীজনের সাথে এক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন নবাগত লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশ সুপার মোঃ মাহফুজ্জামান আশরাফ।
২০ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় রামগতি থানার আয়োজনে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল, রামগতি-কমলনগর) সাইফুল ইসলাম, রামগতি পৌর মেয়র এম মেজবাহ উদ্দিন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রাহিদ হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি কনক চন্দ্র দাস। সভার স ালনা করেন রামগতি থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আলমগীর হোসেন।
বক্তব্য রাখেন চেয়ারম্যান জাকির হোসেন লিটন চৌধুরী, মোজাহিদুল ইসলাম দিদার, যুবলীগ আহবায়ক মেজবাহ উদ্দিন, যুগ্ম আহবায়ক শোয়েব হোসেন খন্দকার, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি এ্যাডভোকেট নারায়ন চন্দ্র মজুমদার, প্রেসক্লাব সভাপতি রেজাউল হক, কাউন্সিলর গীতা রানী দাস, ছাত্রলীগ সভাপতি আকবর হোসেন সুখীসহ প্রমূখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার আরো বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের জিরো ট্রলারেন্স। কেউ জুয়া খেলবেন না, খেলাবেন না, সহযোগিতা করবেন না। জুয়া ও মাদকের সাথে জড়িত কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। কিশোর অপরাধ দমনে পুলিশের পাশাপাশি পরিবারের সদস্যদের এগিয়ে আসার আহবান জানান। পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, থানায় কর্মরত পুলিশই আগে সেবা প্রত্যাশিদের সালাম দিতে হবে।
সভায় উপজেলার জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, মুক্তিযোদ্ধা, শিক্ষক, সাংবাদিক, সামাজিক ও সাংষ্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, ইমাম পুরোহিতসহ বিভিন্ন শ্রেনি ও পেশার মানুষ অংশ নেন।
উল্লেখ্য, চব্বিশতম বিসিএসের এ কর্মকর্তা ২৩ আগস্ট লক্ষ্মীপুর জেলার পুলিশ সুপার হিসেবে যোগ দেন। রামগতিতে এটি তাঁর প্রথম সফর।