সন্ত্রাস দমন আইনের মামলায় লক্ষ্মীপুরে জামায়াতের শীর্ষ ৩ নেতা কারাগারে

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরে সন্ত্রাস দমন আইনের মামলায় জামায়তের তিন শীর্ষ নেতাকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ রহিবুল ইসলাম তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। তারা হলেন রুহুল আমিন, এ আর হাফিজ উল্যা ও মোহাম্মদ নুরুল হুদা। এ মামলায় আরও ৫ জন কারাগারে আছেন।
লক্ষ্মীপুর জজ আদালতের সরকারি কেঁৗসুলী (পিপি) জসিম উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আসামিরা আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিন আবেদন করেছেন। বিচারক তাদের আবেদন নামঞ্জুর করেছেন। তাদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। গ্রেপ্তারকৃত রুহুল আমিনজেলা জায়ামাতের আমির, হাফিজ উল্যা সেক্রেটারী ও নুরুল হুদা জেলা কমিটির সিনিয়র নেতা।
মামলার বিরণীতে পুলিশ উল্লেখ করেন, গত ২৪ সেপ্টেম্বর বিপুল শহরের দক্ষিণ তেমুহনী এলাকার সেমিপাকা ভাড়া বাসায় জামায়াতের ৪০—৫০ জন লোক ঘটনারস্থলে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ঘটানোর পাঁয়তারায় বৈঠক করছিলেন। এসময় ৫২০ টি জেহাদি বইসহ ২ জনকে আটক করে পুলিশ। বাকিরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়।
পরদিন সদর মডেল থানার এসআই হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে সন্ত্রাস দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করে। আটকদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়। ১০ অক্টোবর রাতে আরও তিন জামায়াত নেতাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এতে এ মামলায় আবদুর রহমান, নুর আলম লিটন, আবদুর রশিদ ও সক্রিয় শিবির সদস্য সুমন ও বেলাল হোসেন কারাগারে রয়েছেন।
এদিকে মামলার অন্যতম আসামি রুহুল আমিন, হাফিজ উল্যা ও নুরুল হুদা তখন উচ্চ আদালত থেকে জামিন নেয়। জামিনের সময় শেষ হওয়ায় তারা লক্ষ্মীপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিন আবেদন করেন। আদালত তাদের আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।