আন্দোলনের মধ্য দিয়ে নতুন মুক্তিযুদ্ধের সূচনা করতে হবে

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
এদেশের সাধারণ মানুষের ভাগ্যের কোনো পরিবর্তন হয়নি। জনগণের ভাগ্যের পরিবর্তন করতে হলে, ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলনের মধ্য দিয়ে নতুন মুক্তিযুদ্ধের সূচনা করতে হবে। তাইলেই জনগণের স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে বলে মন্তব্য করেছেন সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া।
তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সরকার, শুধুই স্লোগান দেয়ার জন্য নয়। তারা (আওয়ামী লীগ) এখন মুক্তিযুদ্ধের কথা বলে বৈতরণী পার করা জন্য। অতিতে খালেদার আমলে দেশ পাঁচ বার দুনীর্তে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। সারের জন্য মানুষ মারা হয়েছে, একদিনেই ১৮ জন শ্রমিককে মারা হয়েছিল। কিন্তু আমরা মন্ত্রী থাকাবস্থায় বলেছিলাম, এতোদিন কৃষক সারের পিছনে দৌঁড়েছে, আর এখন সার কৃষকের পিছনে ঘুরবে।
শনিবার (২৬ নভেম্বর) দুপুরে লক্ষ্মীপুর আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে কমরেড মোহাম্মদ তোয়াহার ৩৫তম স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
এসময় কমরেড তোয়াহার জীবনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে তিনি বলেন, কমরেড তোয়াহার প্রয়োজনীয়তা এখনো বিদ্যমান। ওই সময় কমরেড তোয়াহাকে মন্ত্রীত্ব দিতে চেয়েছে, কিন্তু তিনি তা প্রত্যাখ্যান করে বেড়িবাঁধ চেয়েছেন। আজ লক্ষ্মীপুর—কমলনগরের সেই সড়ক থেকে কমরেড তোয়াহার নামফলক তুলে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। তারাই তোয়াহার অবদানকে লুকিয়ে রাখতে চায়, যারা লুটপাটকারী, শোষণকারী, যারা অন্যায় শাসক প্রতিষ্ঠা করতে চায়। যারা আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করতে চায় না, যারা গণতন্ত্রের অধিকার সমুন্নত রাখতে চায় না, যারা বাকস্বাধীনতা চায় না, এই সমস্ত শক্তিরা তোয়াহাকে কালিমা দিয়ে ঢেকে রাখতে চায়। এদেশের সাধারণ মানুষ আজ খুবই দুর্ভাগা।
তিনি আরও বলেন, যে সয়াবিন তেল মানুষ ক্রয় করেছে ৭০/৮০ টাকা, যুদ্ধের অযুহাতে সেই তেল বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকা। সরকার দ্রব্য মূল্যে নিয়ে এখন অসহায়।
সাম্যবাদী দলের লক্ষ্মীপুর শাখার সম্পাদক কমরেড নুরুল আমিনের সভাপতিত্বে ও সদর উপজেলা সম্পাদক কমরেড দিদার হোসেনের স ালনায় এতে বক্তব্য রাখেন সাম্যবাদী দলের কেন্দ্রীয় পল্যিটব্যুরো সদস্য কমরেড লুৎফুর রহমান, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড সুলতান আহমদ বিশ্বাস, মহিউদ্দিন মহিম, জেলা কমিটির সদস্য রুহুল আমিন শিকদার, ওয়ার্কাস পার্টির জেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট মাহবুবুল করিম টিপু, বাসদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিলন মন্ডল, ছাত্রসংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সাধারণ আলাউদ্দিন প্রমুখ।